1. admin@theinventbd.com : admin :
  2. worksofine@rambler.ru : JefferyDof :
  3. kevin-caraballo@mainello5.tastyarabicacoffee.com : kevincaraballo :
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১০:২৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
জলঢাকায় ইএসডিও- ডাভ সেলফ এস্টিম প্রকল্পের অবহিতকরন সভা অনুষ্ঠিত তিস্তায় পানি বৃদ্ধি ২২ গ্রাম প্লাবিত হুমকির মুখে তিস্তার তীরবর্তী মানুষ জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালন জলঢাকায় শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালন করেছে যুবলীগ জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নারী উদ্দোক্তা প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত আনন্দের ভাগিদার হতে ছুটে এসেছি জলঢাকায় পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে ড. তুরিন আফরোজ জলঢাকায় মঙ্গলদ্বীপের উদ্যোগে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জলঢাকায় প্রতিমাকে দৃষ্টিনন্দন করতে রং তুলির কাজে ব্যস্ত এখন কারিগররা জলঢাকায় অনির্বাণ স্কুলে একাডেমিক ভুবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন জলঢাকায় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত

হিলিতে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম

অনলাইন ডেস্ক |
  • প্রকাশকাল | সোমবার, ৩ মে, ২০২১
  • ১০৬ বার পঠিত

পেঁয়াজ আমদানির আইপি শেষ হওয়ায় ও নতুন করে আইপি না পাওয়ায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানি বন্ধ রয়েছে।

এতে করে পণ্যটির সরবরাহ কমায় ৫ দিনের ব্যবধানে হিলিতে আমদানিকৃত ও দেশীয় পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে ৪ থেকে ৫ টাকা।

এদিকে লকডাউন ও রমজানের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যটির দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন নিম্ন আয়ের খেটে-খাওয়া দিনমজুর মানুষজন।

সোমবার সরেজমিন হিলি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ভারতীয় পেঁয়াজ কয়েকদিন আগে ২২ থেকে ২৪ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা বেড়ে ২৭ থেকে ২৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

একইভাবে দেশীয় পেঁয়াজের দাম আগে ৩০ থেকে ৩২ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও বর্তমানে তা বেড়েছে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা।

হিলি বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা রমজান হোসেন ও আসলাম উদ্দিন বলেন, ৪/৫ দিন আগে যে পেঁয়াজ কিনলাম আমরা ২০ থেকে ২২ টাকা কেজি দরে। কয়েকদিনের ব্যবধানে সেই পেঁয়াজ এখন দাম বেড়ে ২৮ টাকা হয়ে গেছে।

একে তো করোনার কারণে লকডাউন চলছে এতে করে কাজ কমে যাওয়ায় আয় নেই বললেই চলে। এর উপর রমজান মাস চলছে এর মাঝেও এভাবে যদি দাম বাড়ে তাহলে আমরা নিম্ন আয়ের মানুষজন এমনিই সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে এর উপর এত দাম দিয়ে কিভাবে পেঁয়াজ কিনবো না অন্য খরচ করবো।

হিলি বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা ফিরোজ হোসেন বলেন, আইপি শেষ হয়ে যাওয়ায় গত ২৯ এপ্রিল থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে গেছে। এতে করে দেশের বাজারে পণ্যটির সরবরাহ কমায় দাম বাড়তে শুরু করেছে।

একইভাবে বাজারে আমদানিকৃত ভারতীয় পেঁয়াজের সরবরাহ কমায় দেশীয় পেঁয়াজের উপর চাপ বাড়ায় দেশীয় পেঁয়াজের দামও বাড়তে শুরু করেছে। মোকামেই পেঁয়াজের দাম বেশি আমরা কি করবো যার কারণে আমরা বাড়তি দামে কিনে আনছি সে মোতাবেক বাড়তি দামে বিক্রি করছি।

তবে অনেক আমদানিকারক তাদের নিজস্ব গুদামে আগের আমদানিকৃত পেঁয়াজ মজুদ করে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে পেঁয়াজের দাম বাড়াচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!