1. admin@theinventbd.com : admin :
  2. worksofine@rambler.ru : JefferyDof :
  3. kevin-caraballo@mainello5.tastyarabicacoffee.com : kevincaraballo :
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৬ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
জলঢাকায় ফেন্সিডিল সহ গ্রেফতার- ২ পলাতক-১’জন মোটরসাইকেল জব্দ সৈয়দপুরে জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে ১৭ বছর থেকে বিধবা ভাতা উত্তোলন, সমাজসেবা কর্তৃপক্ষ নির্বিকার ঝিকরগাছায় আর্সেনিক ঝুঁকি নিরসন প্রকল্পের অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত জলঢাকায় ১১ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশের মাঝে ১০৯টি বাইসাইকেল বিতরণ জলঢাকায় যানজটে জনদুর্ভোগ বেড়েই চলছে : নিরসনের দাবি পৌরবাসির বেনাপোলে গৃহহীনদের ঘর নিয়ে ভুমি অফিসের সহকারীর বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ। ঝিকরগাছায় সাপের কামড়ে ১ গৃহবধূর মৃত্যু বেনাপোলে র‍্যাবের অভিযানে গাজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক সৈয়দপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বাইসাইকেল বিতরণ সৈয়দপুরে সাহিত্য আসরের ৪থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

তবুও প্রাপ্তি দেখছেন মুমিনুল

অনলাইন ডেস্ক |
  • প্রকাশকাল | মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১
  • ৮৮ বার পঠিত

টেস্ট ক্রিকেটে উন্নতির যে চাওয়া, বাংলাদেশের জন্য তা এখনো বহুদূর মনে হচ্ছে। প্রতি সিরিজের পরই শুরুর দিনগুলোর মতো গুটিকয়েক ইতিবাচক দিক খুঁজতে হয়। এখনো এক-দুজনের পারফরম্যান্স সিরিজে নিজেদের বড় প্রাপ্তি হিসেবে নেওয়া হয়। দলগত ভালো করা, জয় বের করে আনা সবসময়ই থেকে যায় আড়ালে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সদ্যসমাপ্ত সিরিজেও তাই। গতকাল সিরিজ শেষের সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মুমিনুল হককে আবারও ছোট-ছোট প্রাপ্তির হিসাব খুলতে হয়েছে। মুমিনুলের কাছে এটাই বড় উন্নতি।

টেস্ট হার নিশ্চিত হওয়া মাত্রই বুঝেছেন অপেক্ষা করছে সমালোচনা। এই সমালোচনা থামাতেই সামনে এনেছেন প্রাপ্তিগুলো। যে কারণে উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের চেয়ে এ সিরিজ নিয়ে সন্তুষ্ট বাংলাদেশ অধিনায়ক। ‘সিরিজ হেরেছি এর মানে এই না যে সব কিছু হেরে গিয়েছি। এর ভেতরেও অনেক ইতিবাচক দিক আছে। প্রথম টেস্টে আমি যেটা সব সময় চাচ্ছিলাম যে দলগতভাবে খেলব। যেটা আমরা শেষ ২-১টি টেস্ট ম্যাচে খেলতে পারিনি। প্রথম টেস্টে তা করতে পেরেছি। আমরা তখনই ভালো খেলি যখন দলগতভাবে খেলতে পারি। এছাড়া তামিম ভাইয়ের দুইটা ৯০ আছে, একটা ৭০ আছে। শান্তর একটা ১৬৩ আছে, মুশফিক ভাই ও লিটনের হাফ সেঞ্চুরি আছে। তাইজুলের ৫ উইকেট আছে। আমার কাছে মনে হয় যেটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, কোনো পেসার কিছু করতে পারছে কি না, সেই হিসেবে তাসকিনকে দেখেছেন। আগের চেয়ে অনেক ভালো এখন। আমার কাছে মনে হয় অনেক ইতিবাচক দিক আছে এই টেস্ট সিরিজে’ বলছিলেন তিনি।

উইন্ডিজের বিপক্ষে কাইল মায়ার্স-ক্রুমা বোনারদের কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কায় তরুণ দুই স্পিনার প্রাভিন জয়াবিক্রমা ও রমেশ মেন্ডিসের কাছে হার। প্রাভিনের ছিল অভিষেক টেস্ট, রমেশ এর আগে খেলেছেন মাত্র একটি টেস্ট। ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় একই ক্লাবের হয়ে খেলা দুই স্পিনার এই সিরিজে শ্রীলঙ্কার তৃতীয় ও চতুর্থ স্পিনার ছিলেন। অথচ তারাই বাজিমাত করলেন দ্বিতীয় টেস্টে, নিয়েছেন ২০ উইকেটের ১৭টি। বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রতিপক্ষের অভিষিক্ত ক্রিকেটাররা বরাবর ভালো করে যাচ্ছে। কিন্তু বাংলাদেশের তরুণ বা অভিষিক্তরা এত পিছিয়ে কেন। মুমিনুলের মতে, অচেনা ক্রিকেটাররা তাদের বিরুদ্ধে সুবিধা করে নিচ্ছে, যে দিকটায় তারা এখনো পিছিয়ে, ‘দেখেন বিশ্বের যত ভালো ব্যাটসম্যানই থাকুক না কেন বোলারের সঠিক লেন্থের বল যদি খেলতে না পারে দিন শেষে ওই বোলারই ভালো করবে। অচেনা থাকার বিষয়টা অবশ্যই অভিষেক ক্রিকেটারদের সাহায্য করে। এটা আমার ক্ষেত্রেও ছিল। বাঁহাতি স্পিনার যে অভিষেক টেস্টে ভালো করেছেৃঅবশ্যই যখন আপনি ব্যাটিং ভালো করবেন না, তখন বাঁহাতি বা ডান হাতি যে স্পিনারই হোক ভালো করবে। আমার মনে হয় যে আমরা দলগতভাবে ভালো ব্যাটিং করতে পারিনি। শুধু তামিম ভাই প্রথম ইনিংসে ভালো করেছে, ভালো শুরু এনে দিয়েছে। আমার যদি অন্তত ৫ সেশন ব্যাট করতে পারতাম তাহলে ফল ভিন্ন হতে পারত, যেটা আমরা পারিনি। এর দায় অবশ্য আমাদের নিজেদেরই।’

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের মাপতে গিয়ে খুব বেশি পরিবর্তন দেখেন না মুমিনুল। বরং আগের চেয়ে গত দুই সিরিজের হিসেবে উন্নতিই দেখছেন। শুধু পয়েন্ট পাননি বলেই খালি চোখে ব্যর্থতাটা সামনে আসছে। কিন্তু ম্যাচ উইনার না পাওয়ার দিকটায় কী করবেন মুমিনুল। এক সাকিব আল হাসানের অভাব পূরণের মতো ক্রিকেটার এখনো তৈরি হয়নি। কিন্তু বিপক্ষের মায়ার্স-জয়াবিক্রমারা প্রথম ম্যাচেই দলকে জেতান। এই পিছিয়ে থাকা কবে দূর হবে বাংলাদেশের? মুমিনুল বলেন, ‘যখন আপনি ভালো করবেন না বা ফল আপনার পক্ষে আসবে না তখন দেখা যায় যে কোনো না কোনো একটা জায়গায় ঘাটতি থাকে। এই টেস্টে যেমন স্পিনাররা ভালো করতে পারছিল না। কিন্তু এখানে প্রথম ইনিংসে উইকেট থেকে কোনো সাহায্য ছিল না। তারপরও বোলাররা সঠিক জায়গায় বল করেছে। প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা একদিনেই কিন্তু ২৯২ করেছিল আবার দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯০-এ অলআউট হয়ে যাচ্ছিল। তাইজুল খুব ভালো বল করেছে। তো এটা দিন দিন উন্নতি হচ্ছে। আমার স্পিনারদের ওপর আরও চাহিদা আছে। আমাদের এখানেই বসে থাকলে চলবে না আরও উন্নতি করতে হবে। স্পিনাররা আরও উন্নতি করতে পারত।’

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!