1. admin@theinventbd.com : admin :
  2. worksofine@rambler.ru : JefferyDof :
  3. kevin-caraballo@mainello5.tastyarabicacoffee.com : kevincaraballo :
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:০৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
সৈয়দপুরে জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে ১৭ বছর থেকে বিধবা ভাতা উত্তোলন, সমাজসেবা কর্তৃপক্ষ নির্বিকার ঝিকরগাছায় আর্সেনিক ঝুঁকি নিরসন প্রকল্পের অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত জলঢাকায় ১১ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশের মাঝে ১০৯টি বাইসাইকেল বিতরণ জলঢাকায় যানজটে জনদুর্ভোগ বেড়েই চলছে : নিরসনের দাবি পৌরবাসির বেনাপোলে গৃহহীনদের ঘর নিয়ে ভুমি অফিসের সহকারীর বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ। ঝিকরগাছায় সাপের কামড়ে ১ গৃহবধূর মৃত্যু বেনাপোলে র‍্যাবের অভিযানে গাজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক সৈয়দপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বাইসাইকেল বিতরণ সৈয়দপুরে সাহিত্য আসরের ৪থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন সৈয়দপুরে উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় বক্তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের প্রকৃত সৈনিকেরা ষড়যন্ত্রকে ভয় পায়না তারা লড়াই করেই বাঁচে, বিজয়ী হয়

ক্ষমা ও জান্নাত লাভের প্রতিযোগিতা

অনলাইন ডেস্ক |
  • প্রকাশকাল | বৃহস্পতিবার, ৬ মে, ২০২১
  • ৬৪ বার পঠিত

পবিত্র রমজানের চব্বিশ তম খতমে তারাবিতে তেলাওয়াত করা হবে সাতাশতম পারা। অর্থাৎ সুরা আয যারিয়াতের ৩১ নম্বর আয়াত থেকে শুরু করে সুরা আত তুর, সুরা আন নাজম, সুরা আল কামার, সুরা আর রাহমান, সুরা ওয়াকিয়া ও সুরা আল হাদিদের শেষ পর্যন্ত তেলাওয়াত করা হবে। আজকের পঠিত অংশের সুরা আর রাহমান, সুরা ওয়াকিয়া ও সুরা হাদিদ নিয়ে আলোচনা করা হলো।

সুরা আর রাহমানে আল্লাহতায়ালা মানবজাতির জন্য যেসব বস্তুগত ও আধ্যাত্মিক নেয়ামত দিয়েছেন ওই সব নেয়ামতের কিছু বিষয় এ সুরায় স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে। এই সুরার আলোচ্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে, সৃষ্টিকুলের জন্য মহান আল্লাহর নেয়ামত রাজি, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের গুরুত্ব, বিচার দিবস ও মাপের পাল্লা, মানুষের কল্যাণের নানা সামগ্রী এবং আত্মা ও দেহের উপযোগী নানা খাদ্য। এ ছাড়া জিন ও মানুষের সৃষ্টি, আকাশ ও জমিনে ছড়িয়ে থাকা আল্লাহর বিভিন্ন নিদর্শন, ঝরনা, উদ্যান, ফল, সুশ্রী ও পবিত্র স্ত্রী এবং বেহেশতের নানা নেয়ামতের কথা, অপরাধীদের ভয়ংকর পরিণতি এবং তাদের যন্ত্রণাদায়ক নানা শাস্তির কথা স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে এই সুরায়।

সুরা আর রাহমানের রচনাশৈলী ও বাক্য বিন্যাস প্রণালি এত প্রাণস্পর্শী যে, আরবের কবিরা সুরাটির ছন্দ মাধুর্য, ভাষার দ্যোতনা, ভাব ও বক্তব্যের ব্যঞ্জনায় অভিভূত হয়ে এর ভূয়সী প্রশংসা করতেন। ছন্দের ন্যায় এ সুরায় খোদায়ী নানা নেয়ামতের বর্ণনার পাশাপাশি, ‘ফাবি আইয়্যি আলায়ি রাব্বিকুমা তুকাজ্জিবান’ আয়াতটির (অতএব, তোমরা উভয়ে তথা জিন ও মানুষ তোমাদের পালনকর্তার কোন কোন অনুগ্রহকে অস্বীকার করবে?) পুনরাবৃত্তি সুরাকে দিয়েছে অনন্য ছন্দময় সুরের চিত্তাকর্ষক সৌন্দর্য।

সুরা আর রাহমানের বেশির ভাগ বিষয়বস্তু ইহলৌকিক ও পারলৌকিক অনুগ্রহসমূহের বর্ণনা সম্পর্কিত। তাই যখন আল্লাহর বিশেষ কোনো অবদান উল্লেখ করা হয়েছে তখনই মানুষকে সতর্ক ও কৃতজ্ঞতা স্বীকারে উৎসাহিত করার জন্য ওই আয়াতটি উল্লেখ করা হয়েছে। প্রত্যেকবার নতুন নতুন বিষয়বস্তুর সঙ্গে সম্পৃক্ত হওয়ার কারণে আয়াতটি মোট একত্রিশ বার উল্লেখ করা হয়েছে এই সুরায়।

ফজিলতময় আরেক সুরার নাম ওয়াকিয়া। এই সুরা সম্পর্কে হাদিসে এসেছে, যে ব্যক্তি রাতের অংশে সুরা ওয়াকিয়া তেলাওয়াত করবে, অভাব তাকে কোনোদিন স্পর্শ করবে না। এক সাহাবির মৃত্যুর পর তার কন্যাদের খলিফা সাহায্য করতে চাইলে, তাদের পক্ষ থেকে বলা হয়; তাদের পিতা সুরা ওয়াকিয়া তেলাওয়াতের আমল শিক্ষা দিয়ে গেছেন। অতএব তারা কখনো অভাবের শিকার হবে না। তাদের সাহায্য দেওয়ার দরকার নেই। সহিহ্ মুসলিম

নবী করিম (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি সুরা ওয়াকিয়া পাঠ করবে, সে কখনো ক্ষুধায় কষ্ট ভোগ করবে না।’ এই সুরা নিয়মিত পাঠ করলে দরিদ্রতা গ্রাস করতে পারে না। হজরত ইবনে মাসউদ (রা.) তার মেয়েদের প্রতি রাতে এ সুরা তেলাওয়াতের আদেশ করতেন। বায়হাকি, শোয়াবুল ইমান : ২৪৯৮

হাদিসে নারীদের এ সুরা শিক্ষা দেওয়ার জন্য তাগিদ দেওয়া হয়েছে। আম্মাজান হজরত আয়েশ (রা.)-কে এ সুরা পাঠের জন্য নির্দেশ করা হয়েছিল।

সুরা হাদিদের আলোচ্য বিষয় হচ্ছে আল্লাহর পথে অর্থ-সম্পদ ব্যয় প্রসঙ্গে। এ উদ্দেশে সর্বপ্রথম আল্লাহর গুণাবলি বর্ণনা করা হয়েছে। যাতে শ্রোতারা ভালোভাবে উপলব্ধি করতে পারে, কোনো মহান সত্তার পক্ষ থেকে তাকে সম্বোধন করা হচ্ছে।

সুরা হাদিদে ইরশাদ হচ্ছে, ‘তোমরা জেনে রাখো, পার্থিব জীবন ক্রীড়া-কৌতুক, সাজসজ্জা, পারস্পরিক অহমিকা এবং ধন ও জনের প্রাচুর্য ছাড়া আর কিছু নয়, যেমন এক বৃষ্টির অবস্থা, যার সবুজ ফসল কৃষকদের চমৎকৃত করে, এরপর তা শুকিয়ে যায়, ফলে তুমি তাকে পীতবর্ণ দেখতে পাও, এরপর তা খড়কুটা হয়ে যায়; আর পরকালে আছে কঠিন শাস্তি এবং আল্লাহর ক্ষমা ও সন্তুষ্টি, পার্থিব জীবন প্রতারণার উপকরণ বৈ কিছু নয়। তোমরা অগ্রে ধাবিত হও তোমাদের পালনকর্তার ক্ষমা ও সেই জান্নাতের দিকে, যা আকাশ ও পৃথিবীর মতো প্রশস্ত; এটা প্রস্তুত করা হয়েছে আল্লাহ ও তার রাসুলদের প্রতি বিশ্বাস স্থাপনকারীদের জন্য। এটা আল্লাহর কৃপা, তিনি যাকে ইচ্ছা এটা দান করেন আল্লাহ মহান কৃপার অধিকারী।’ সুরা হাদিদ : ২০-২১

বর্ণিত আয়াতে বলা হয়েছে, দুনিয়ার জীবন মাত্র কয়েক দিনের চাকচিক্য এবং ধোয়ার উপকরণ। এখানকার (দুনিয়ার) খেল-তামাশা, আনন্দ-আকর্ষণ, সৌন্দর্য ও সাজসজ্জা, শ্রেষ্ঠত্ব নিয়ে গর্ব-অহংকার, ধন-সম্পদ ও ঐশ্বর্যের বিষয়ে একে অপরকে অতিক্রম করার চেষ্টা-সাধনা সবকিছুই অস্থায়ী। এর উপমা দেওয়া যায় সেই শস্য ক্ষেত্রের সঙ্গে, যা প্রথম পর্যায়ে সবুজ ও সতেজ হয়। তারপর বিবর্ণ হয়ে তামাটে বর্ণ ধারণ করে এবং সর্বশেষ ভুসিতে পরিণত হয়। এভাবে দুনিয়ার অসারতা, ক্ষণ ভঙ্গুরতার দৃশ্যায়নের পর মহান আল্লাহ বলছেন, ‘আল্লাহর ক্ষমা ও জান্নাত লাভের প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হওয়ার চেষ্টা করো।’

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!