1. admin@theinventbd.com : admin :
  2. worksofine@rambler.ru : JefferyDof :
  3. kevin-caraballo@mainello5.tastyarabicacoffee.com : kevincaraballo :
সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১, ১১:১১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত জলঢাকায় ইএসডিও- ডাভ সেলফ এস্টিম প্রকল্পের অবহিতকরন সভা অনুষ্ঠিত তিস্তায় পানি বৃদ্ধি ২২ গ্রাম প্লাবিত হুমকির মুখে তিস্তার তীরবর্তী মানুষ জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালন জলঢাকায় শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালন করেছে যুবলীগ জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নারী উদ্দোক্তা প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত আনন্দের ভাগিদার হতে ছুটে এসেছি জলঢাকায় পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে ড. তুরিন আফরোজ জলঢাকায় মঙ্গলদ্বীপের উদ্যোগে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জলঢাকায় প্রতিমাকে দৃষ্টিনন্দন করতে রং তুলির কাজে ব্যস্ত এখন কারিগররা জলঢাকায় অনির্বাণ স্কুলে একাডেমিক ভুবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

মৃত্যু আবার ৫০ ছাড়াল

অনলাইন ডেস্ক |
  • প্রকাশকাল | সোমবার, ১০ মে, ২০২১
  • ৬৩ বার পঠিত

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কমতির মধ্যে মৃত্যু আবারও বেড়েছে। টানা তিন দিন মৃত্যু ৫০-এর নিচে থাকার পর গতকাল রবিবার আবারও তা ৫০-এর ওপরে উঠেছে। এদিন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৫৬ জন করোনা রোগী মৃত্যুবরণ করেছেন, যা গত পাঁচ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ। তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২২ ও চট্টগ্রামে ২১ জন মারা গেছেন। এছাড়া মৃতদের ৪৫ জনই ছিলেন পঞ্চাশোর্ধ্ব বয়সের। চলমান করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে গত দুই সপ্তাহ ধরেই মৃত্যু কমতির মধ্যে রয়েছে। তার আগে এপ্রিলের মাঝামাঝিতে দৈনিক মৃত্যু ১০০ ছাড়িয়েছিল। সর্বশেষ গত ২৫ এপ্রিল শতাধিক রোগীর মৃত্যু হয়েছিল। তারপর থেকে মৃত্যু কমছে। কিন্তু কমতিতে ধারাবাহিকতা থাকছে না। কয়েকদিন করার পর আবার হঠাৎ বেড়ে যাচ্ছে। দীর্ঘ ৩৬ দিন পর গত ৬ এপ্রিল মৃত্যু প্রথমবার ৫০-এর নিচে নামে। তার পরদিন মৃত্যু আরও কমে ৪০ নিচে নামে। কিন্তু একদিন না যেতেই মৃত্যু আবার এক লাফে ৫০-এর ওপরে উঠল।

এদিকে দেশে করোনাভাইরাসের নতুন রোগী শনাক্ত হারে নিম্নগতি অব্যাহত রয়েছে। দ্বিতীয় ঢেউয়ের সংক্রমণ কমা শুরুর পর গতকাল সর্বনিম্ন হারে রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদিন অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ৮ দশমিক ১৯ শতাংশ হারে রোগী শনাক্ত হয়েছে, যা গত ৫৩ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে সর্বশেষ গত ১৭ মার্চ এরচেয়ে কম হারে রোগী শনাক্ত হয়েছিল। গতকাল ১৭ হাজারের কাছাকাছি নমুনা পরীক্ষায় ১ হাজার ৩৮৬ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্তের পর গতকাল ছিল ৪২৭তম দিন। অধিদপ্তরের এদিনের বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, দেশে ৪৫৪টি পরীক্ষাগারে করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। এর মধ্যে ৩৫টি জিন-এক্সপার্ট, নতুন দশটিসহ ২৯১টি র্যাপিড অ্যান্টিজেন ও নতুন একটিসহ ১২৮টি আরটি-পিসিআর পরীক্ষাগার। এসব পরীক্ষাগারে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় (শনিবার সকাল ৮টা থেকে রবিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৬ হাজার ৭৭৫ জনের। আগের কিছু নমুনাসহ পরীক্ষা করা হয়েছে ১৬ হাজার ৯১৫ জনের, যার মধ্যে ১ হাজার ৪৬৯টি নমুনা ছিল বিদেশ গমনেচ্ছুদের। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত ৫৬ লাখ ৩০ হাজার ৮৯৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এসব পরীক্ষায় রোগী শনাক্ত হয়েছে ৭ লাখ ৭৩ হাজার ৫১৩ জন। মোট পরীক্ষার বিপরীতে গড়ে ১৩ দশমিক ৭৪ শতাংশ লোকের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১১ হাজার ৯৩৪ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যুহার ১ দশমিক ৫৪ ও সুস্থতার হার ৯১ দশমিক ৮১ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সর্বশেষ মৃতদের মধ্যে পুরুষ ৩৮ ও নারী ১৮ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত ৮ হাজার ৬৫৩ পুরুষ ও ৩ হাজার ২৮১ নারী মৃত্যুবরণ করেছেন। শতকরা হিসাবে পুরুষ ৭২ দশমিক ৫১ ও নারী ২৭ দশমিক ৪৯ ভাগ। এদিন ঢাকা বিভাগে ২২ ও চট্টগ্রামে ২১ জন মারা গেছেন। বাকিদের মধ্যে খুলনায় ৪, রাজশাহীতে ৩, বরিশাল ও রংপুরে ২ জন করে এবং সিলেট ও ময়মনসিংহে ১ জন করে মারা গেছেন। বয়স অনুযায়ী সর্বশেষ মৃতদের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব ৩০, ৫১-৬০ বছরের ১৫, ৪১-৫০ বছরের ৭, ৩১-৪০ বছরের ৩ জন এবং ২১-৩০ বছরের ছিল ১ জন। এদিন ৩৬ জন সরকারি হাসপাতালে, ১৫ জন বেসরকারি হাসপাতালে এবং ৫ জন বাসায় মারা গেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ২৮৫ রোগীকে আইসোলেশনে ও ৭৭৫ জনকে কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে আইসোলেশনে ১৮ হাজার ৭৪৬ এবং কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৪৭ হাজার ৮৮৭ জন। সারা দেশে কভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলোয় ১২ হাজার ৫৯টি সাধারণ বেডের মধ্যে গতকাল রোগী ভর্তি ছিলেন ২ হাজার ৪২৮টিতে। বাকিগুলো খালি ছিল। এ ছাড়া ১ হাজার ৬৯টি আইসিইউর মধ্যে এদিন রোগী ভর্তি ছিলেন ৪০৫টিতে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!