1. admin@theinventbd.com : admin :
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১১:১৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ

নীলফামারী থেকে অপহৃত মা ও শিশু নওগাঁয় উদ্ধার

জয়নাল আবেদীন হিরো,স্টাফ রিপোর্টার :
  • প্রকাশকাল | বৃহস্পতিবার, ২৭ মে, ২০২১
  • ৬৬ বার পঠিত

নীলফামারী জেলা শহরের গাছবাড়ি থেকে অপহৃত মা (নাজমা বেগম(২৬)) ও শিশুকে (নিসাদ(৭)) উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার ২৬ মে রাতে নওগাঁ জেলার পত্নীতলা উপজেলা থেকে উদ্ধার করে আজ বৃহস্পতিবার(২৭ মে) সকালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে বিকালে বিজ্ঞ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। অপহৃত ওই মা ও শিশুর বাড়ি জেলার ডোমার উপজেলা শহরে। গত বছরের(২০২০ সাল) ১১ ডিসেম্বর অপহরণের শিকার হন তারা।

পুলিশ জানায়, ডিমলা উপজেলা শহরের আবুল কাশেমের ছেলে মাহমুদুল হাসান মামুন গত বছরের ১১ ডিসেম্বর জেলা শহরের গাছবাড়ি থেকে ওই মা ও মেয়েকে অপহরণ করেন। পরে অজ্ঞাত স্থানে আটক রেখে পরিবারের কাছে মোটা অংকের মুক্তিপণ দাবি করেন। এ ঘটনায় অপহরণের শিকার ওই নারীর স্বামী (আল আমিন) বাদি হয়ে আদালতে চলতি বছরের ৬ জানুয়ারী অপহরণ ও ৭ মার্চ মানব পাচার প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের করেন। আদালতের নির্দেশে নীলফামারী সদর থানায় ১৩ জানুয়ারী অপহরণ এবং ২৭ মার্চ মানব পাচার প্রতিরোধ আইনে পৃথক দুটি মামলা রেকড করা হয়। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় নওগাঁ পত্নীতলা উপজেলায় তাদের সন্ধ্যান মিললে গতকাল বুধবার রাতে মামলার দন্তকারী কর্মকর্তা নীলফামারী সদর থানার উপ-পরিদর্শক শাহারুল ইসলাম তাদেরকে উদ্ধার করতে সক্ষম হন।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান(বিপিএম,পিপিএম) জানান, তাদের উদ্ধারে আমার নির্দেশে পুলিশের বিশেষ একটি দল অভিযান শুরু করে। তারই ধারাবাহিকতায় বগুড়া, রাজশাহীসহ বিভিন্ন জেলায় অভিযান পরিচালনা করে পুলিশ। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় এক পর্যায়ে তাদের সন্ধান মেলে নওগাঁ জেলায়। তাদের উদ্ধারে তদন্তকারী কর্মকর্তা ও নীলফামারী সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহারুল ইসলাম ২৬ মে নওগাঁ জেলায় অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানের এক পর্যায়ে তাদের নওগাঁ জেলার পত্নীতলা থানা পুলিশের সহযোগিতায় পত্নীতলা থেকে উদ্ধার করা হয়।
নীলফামারী সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহমুদ-উন নবী বলেন, অপহৃতদের উদ্ধার করা সম্ভব হলেও আসামী পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের অভিযান অব্যহত আছে।
নীলফামারী সদর থানার ওসি আব্দুর রউপ বলেন, উদ্ধার হওয়া মা ও শিশুকে ২৫০ শয্যার নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে বিকেলে আদালতে তোলা হয়। আদালতের নির্দেশে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!