1. admin@theinventbd.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১১:৩৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
করোনায় একদিনে আরো ২৫৮ মৃত্যু, শনাক্ত ১৪৯২৫ করোনা টেস্টে গ্রামীণ জনগণের ভীতি নিরসনে কাজ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী সৈয়দপুরে বিধিনিষেধ না মানায় ১০ জনের ২৩ হাজার টাকা জরিমানা ও চোলাই মদসহ আটক যুবকের ৩ মাসের কারাদণ্ড সৈয়দপুর ব্যস্ততম বাজারের সড়কে ময়লার ভাগার॥ দুর্গন্ধে অতিষ্ট এলাকাবাসী ও পথচারী সৈয়দপুরে ধসে পড়ল সরকারী নির্মাণাধীন ভবন জলঢাকায় ক্যান্সার আক্রান্ত শিক্ষক মাধবকে শিক্ষক সংঘের পক্ষ থেকে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান জলঢাকায় সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন উপলক্ষে যুবলীগের বৃক্ষরোপণ করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ২৪৭ মৃত্যু, ১৫১৯২ শনাক্ত সৈয়দপুরে ভুয়া কেসস্লিপসহ মাইক্রোবাস আটক করোনা: ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু আরও ২২৮, শনাক্ত ১১২৯১

কিশোরগঞ্জে বাণিজ্যিকভাবে শুরু হয়েছে কলার চাষ,অনেক কৃষকের ভাগ্যের পরিবর্তন

জয়নাল আবেদীন হিরো,স্টাফ রিপোর্টার :
  • প্রকাশকাল | শুক্রবার, ২৮ মে, ২০২১
  • ৫৫ বার পঠিত

: নীলফামারীর কিশোরগঞ্জের কৃষকরা পরিত্যক্ত অনাবাদি বালুময় জমি বাড়ির আনাচে- কানাচে পুকুর পাড়ে বাণিজ্যিকভাবে শুরু করেছেন কলা চাষ। এ ফসল চাষ করে অনেক কৃষক এনেছেন তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন। কৃষকরা বলছেন, কলা চাষ একটি লাভজনক ফসল। এ ফসলে খরচ কম তবে লাভ বেশি। কলা রুয়ে না কেটো পাত, তাতেই কাপড় তাতেই ভাত, খনার এ বচনে শুধু ভাত কাপড়ই নয়, এ জনপদের পিছিয়ে পড়া গ্রামগুলোর সেই ছনের নিচু ঘরগুলো উঁচু হয়ে উঠেছে ইট, পাথরের দেয়াল আর টিনের চালে। আর ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলোর ঝলকানি। সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন প্রত্যন্ত অঞ্চল ঘুরে এমন চিত্র চোখে পড়ে। গ্রামীণ মেঠো পথের রাস্তার পাশে সারি সারি কলার গাছে ঝুলছে কলার কাঁদি। উপজেলার চাঁদখানা ইউপি’র নগরবন গ্রামের কলাচাষি মিজান জানান, গত বছর ৩বিঘা জমিতে মেহের সাগর, দেশী মালভোগের ৭৫০টি কলার চারা রোপন করে ৫০হাজার টাকা খরচ করে ৯/১০মাস পর প্রথম কাটায় কলা বিক্রি করেন, ১লাখ ৩০হাজার টাকা। যা খরচ বাদে ৮০হাজার টাকা লাভ হয়েছে। একবার রোপণ করা কলা গাছ থেকে পর্যাক্রমে নতুন করে গজানো চারা গাছ পরিচর্যা করে ৪/৫বছর ফলন পাওয়া যায়। তিনি আরও জানান, দ্বিতীয় পর্যায়ে বেশি লাভ, তৃতীয় পর্যায়ে আরো বেশি লাভ। তুলনামূলক অন্য ফসলের চেয়ে কলা চাষে লাভ বেশি। দ্বিতীয় কাটায় বিশেষ করে এবছর ২লাখেরও অধিক টাকা লাভের স্বপ্ন বুনছেন তিনি। একই ইউপি’র চাঁদখানা চার মাথার মোড়ের কলা চাষে সফল কৃষক দুলাল জানান, দীর্ঘদিন ধরে ৪বিঘা জমিতে কলা চাষে তার ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটিয়েছেন। বাহাগিলী ইউপি’র উঃ দুরাকুটি গ্রামের আব্দুল জব্বার, তিনিও বিগত কয়েক বছর ধরে কলা চাষ করে ভালোই লাভবান হয়েছেন। তিনি জানান, কলা চাষে তেমন ঝুঁকি নেই, সঠিক সময়ে পরিচর্যা করলে কলার ভালো ফলন পাওয়া যায়।


নিতাই বেলতলি কাচারী পাড়ার কৃষক সিরাজুল জানান, অন্য ফসলের চাষ না করে বিগত ১০বছর ধরে ৫বিঘা জমিতে কলার চাষ করছেন। ১বিঘা (৩০শতাংশ) জমিতে ১৫/২০হাজার টাকা খরচ করে কলা বিক্রি করে আয় হয় ৮০হাজার টাকা। যা খরচ বাদে লাভ হয় ৬০/৬৫ হাজার টাকা। প্রতি বছর ৫বিঘা জমির কলাতে আয় হয় ৩লাখ টাকার মত। আর কলা বিক্রিতেও তেমন ঝুট ঝামেলা নেই। বিভিন্ন প্রান্তরের ব্যবসায়ীগন বাগান থেকে কলা ক্রয় করে নিয়ে যান। এখন তিনি খনার বচনের মর্মকথায় ভাত-কাপড়ের পাশাপাশি জমি, পাকা বাড়ি, গাড়ির মালিক।উপজেলা কৃষি অফিসার হাবিবুর রহমান জানান, চলতি বছর ১৫ হেক্টর জমিতে কলা চাষের লক্ষ মাত্র নির্ধারণ করা হয়েছে। কৃষি অফিসের সার্বিক পরামর্শে কলা বাম্পার ফলন হয়েছে।অনেক কলা চাষি এফসল চাষাবাদ ভাগ্যের পরিবর্তন এনেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!