1. admin@theinventbd.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৬:১৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
সৈয়দপুরে ৮ বছরের শিশুকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে একমাস ধরে ধর্ষণের অভিযোগ।। হাতেনাতে সৎ নানা আটক কিশোরগঞ্জে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতাভোগীদের ৯ মাসের টাকা বেহাত কিশোরগঞ্জে ১টি পরিবারকে ৫ দিন ধরে অবরুদ্ধ রাখার অভিযোগ সৈয়দপুরে চালককে ছুরিকাঘাত করে ভ্যান ছিনতাই নীলফামারীতে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী দুই শিক্ষার্থী পেল পোর্টেবল ভিডিও ম্যাগনিফায়ার জলঢাকায় ববিতা রানী সরকারের প্রতিবন্ধীর মাঝে হুইল চেয়ার বিতরন আমজাদ সরকার সভাপতি ও খায়রুল সম্পাদক জলঢাকায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর কমিটি গঠন জলঢাকায় হরিজন সম্প্রদায়ের অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াই করবেন ব্যারিস্টার তুরিন মিথ্যা প্রতিবেদন প্রকাশের প্রতিবাদে সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন সৈয়দপুরে গোয়াল ঘরের তালা কেটে গাভী চুরি

স্পুৎনিক-ভি টিকাও উৎপাদন করবে সেরাম

অনলাইন ডেস্ক |
  • প্রকাশকাল | শনিবার, ৫ জুন, ২০২১
  • ২৯ বার পঠিত

প্রতিশ্রুত টিকা সরবরাহ না করে বাংলাদেশসহ বিশ্বের কমপক্ষে ৯১টি দেশকে ক্ষতিগ্রস্ত করা ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট এবার রাশিয়ার করোনা টিকা স্পুৎনিক-ভি তৈরির ছাড়পত্র পেয়েছে।

ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, পরীক্ষা, বিশ্লেষণের জন্য বিশেষ কয়েকটি শর্তের ভিত্তিতে এই অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

রাশিয়ার ‘গামালেয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিওলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজি’র সঙ্গে যৌথভাবে এই টিকা উৎপাদন করবে সেরাম।

বর্তমানে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কোভিশিল্ড উৎপাদন করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। পাশাপাশি, রাশিয়ার স্পুৎনিক-ভি উৎপাদনের জন্য বৃহস্পতিবার ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে আবেদন করেছিল সেরাম।

জানা গেছে, চারটি ভিন্ন টিকা উৎপাদনের ক্ষেত্রে চারটি ভিন্ন শর্ত দেওয়া হয়েছে সেরামকে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, সেরামের টিকা রপ্তানিতে ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্তের ফলে ৯১টি দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই দেশগুলো অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকা (কোভিশিল্ড) ও আসন্ন নোভাভ্যাক্সসহ সেরামের ওপর নির্ভরশীল ছিল।

আস্ট্রাজেনেকা ডোজের উৎপাদনকারী সেরাম কোভ্যাক্সের মূল সরবরাহকারী। কিন্তু অভ্যন্তরীণ সংকটের কারণে নয়াদিল্লি টিকা রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করলে কোভ্যাক্স সংকটে পড়ে।

অগ্রিম টাকা নিয়েও সেরাম প্রতিশ্রুত টিকা সরবরাহ না করায় শেষ পর্যন্ত টিকা সংকটে বন্ধ হয়ে যায় বাংলাদেশের টিকাদান কর্মসূচি।

কেনা টিকার জন্য ভারতের সর্বোচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ করেও ব্যর্থ বাংলাদেশ। চুক্তিতে দায়মুক্তি দিয়ে রাখায় সেরাম ইনস্টিটিউটের বিরুদ্ধে মামলা করারও সুযোগ নেই।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!