1. admin@theinventbd.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ০৫:০২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
সৈয়দপুরে ৮ বছরের শিশুকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে একমাস ধরে ধর্ষণের অভিযোগ।। হাতেনাতে সৎ নানা আটক কিশোরগঞ্জে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির ভাতাভোগীদের ৯ মাসের টাকা বেহাত কিশোরগঞ্জে ১টি পরিবারকে ৫ দিন ধরে অবরুদ্ধ রাখার অভিযোগ সৈয়দপুরে চালককে ছুরিকাঘাত করে ভ্যান ছিনতাই নীলফামারীতে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী দুই শিক্ষার্থী পেল পোর্টেবল ভিডিও ম্যাগনিফায়ার জলঢাকায় ববিতা রানী সরকারের প্রতিবন্ধীর মাঝে হুইল চেয়ার বিতরন আমজাদ সরকার সভাপতি ও খায়রুল সম্পাদক জলঢাকায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর কমিটি গঠন জলঢাকায় হরিজন সম্প্রদায়ের অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াই করবেন ব্যারিস্টার তুরিন মিথ্যা প্রতিবেদন প্রকাশের প্রতিবাদে সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন সৈয়দপুরে গোয়াল ঘরের তালা কেটে গাভী চুরি

সৈয়দপুরে রাস্তা সংস্কারের ১০ মাসেই ভেঙ্গে বিশাল গর্ত, দূর্ঘটনার আশংকা

জয়নাল আবেদীন হিরো,স্টাফ রিপোর্টার :
  • প্রকাশকাল | মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১
  • ২০ বার পঠিত

প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ত্রাণের টাকায় সংস্কারকৃত গ্রামীন জনপদের একটি রাস্তা
মাত্র ১০ মাসেই ভেঙ্গে মাঝামাঝি বিশালকৃতির গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীকে।
সে সাথে দেখা দিয়েছে যে কোন মূহুর্তে ওই গর্তে পড়ে বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা। নিম্নমানের উপকরণ ও যাচ্ছে তাই ভাবে কাজ করায় এমন পরিস্থিতির শিকার হতে হয়েছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।
এজন্য তারা দ্রুত সমস্যা সমাধান এবং দূর্নীতির সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানিয়েছেন।
জানা যায়, নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের উত্তর সোনাখুলী দলবাড়িপাড়া এলাকায় চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি কাঁচা ছিল। মাত্র ১০ মাস পূর্বে সৈয়দপুর উপজেলা ত্রাণ কার্যালয়ের অধীনে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ৫১ লাখ টাকা ব্যায়ে হেরিংবোন করা হয়েছে। কাজ করার সময়ই নিম্নমানের ইট ব্যবহার করা এবং বেডিংয়ে বালি দিয়ে ঠিকমত ডাম্পিং না করেই কোনরকমে শেষ করায় এলাকাবাসী অভিযোগ তুলেছিল।
কিন্তু প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা বিষয়টি গুরুত্ব না দেয়ায় ঠিকাদার নীলফামারী শহরের সোহেল কন্ট্রাকশন এলাকাবাসীর বাধা উপেক্ষা করে নামকাওয়াস্তে কাজ করে যথারীতি বিল উত্তোলন করেছে। এদিকে কাজ করার মাত্র ১০ মাসের মাথায় রাস্তাটির মাঝ বরাবর বেশ কয়েক জায়গায় বড় বড় গর্ত হয়েছে। গত কয়েকদিনের সামান্য বৃষ্টিতেই ওই গর্তের মাধ্যমে পানি গড়িয়ে রাস্তাটি পাশের নিচু জমিতে সম্পূর্ণ মাটি ও ইট ধ্বসে গেছে।
এর ফলে রাস্তার অর্ধেকের বেশি অংশ ভেঙ্গে যাওয়ায় চলাচলে চরম অসুবিধার সৃষ্টি হয়েছে। কোন প্রকার যানবাহন যাতায়াত করতে পারছেনা। ফলে দূর্ভোগ দেখা দিয়েছে। তাছাড়া প্রায় কোমড় সমান গর্তে যে কোন সময় যানবাহন বা লোকজন পড়ে গিয়ে বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, ইউপি মেম্বার ও চেয়ারম্যানকে সমস্যার কথা জানানো হয়েছে। কিন্তু প্রায় ১৫ দিন পেরিয়ে গেলেও গর্ত সংস্কারে কোন পদক্ষেপ নেয়নি কর্তৃপক্ষ। বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী জানান, এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে রাস্তা ভাঙ্গার বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও)
এবং সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে মুঠোফোনে অবগত করেছি। তারা কোন উদ্যোগ না নেয়ায় রাস্তাটি ঠিক করতে পারছিনা।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আবু হাসনাত সরকার মুঠোফোনে জানান, রাস্তাটি প্রায় ১ বছর আগে সংস্কার করা হয়েছে।
এখন বর্ষাকাল, বৃষ্টির কারণে রাস্তার নিচের মাটি সরে যাওয়ায় হয়তো গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় উপরের মাটি, বালি ও ইট ধ্বসে গেছে।
দ্রুত ঠিকাদারের মাধ্যমে রাস্তাটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া হবে। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সোহেল কন্সট্রাকশন এর স্বত্বাধিকারী সোহেল রানার সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, রাস্তাটির কাজ শেষ হয়েছে প্রায় ১ বছর আগে।
যথাযথভাবে কাজ সম্পন্ন করে কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দিয়েছি। এখন ভেঙ্গে গেলে তা দেখার দায়িত্ব আমার নয়।
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। পিআইও কে বলেছি রাস্তাটি ঠিক করে দেওয়ার জন্য।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!