1. admin@theinventbd.com : admin :
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১২:২৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
করোনায় একদিনে আরো ২৫৮ মৃত্যু, শনাক্ত ১৪৯২৫ করোনা টেস্টে গ্রামীণ জনগণের ভীতি নিরসনে কাজ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী সৈয়দপুরে বিধিনিষেধ না মানায় ১০ জনের ২৩ হাজার টাকা জরিমানা ও চোলাই মদসহ আটক যুবকের ৩ মাসের কারাদণ্ড সৈয়দপুর ব্যস্ততম বাজারের সড়কে ময়লার ভাগার॥ দুর্গন্ধে অতিষ্ট এলাকাবাসী ও পথচারী সৈয়দপুরে ধসে পড়ল সরকারী নির্মাণাধীন ভবন জলঢাকায় ক্যান্সার আক্রান্ত শিক্ষক মাধবকে শিক্ষক সংঘের পক্ষ থেকে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান জলঢাকায় সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন উপলক্ষে যুবলীগের বৃক্ষরোপণ করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ২৪৭ মৃত্যু, ১৫১৯২ শনাক্ত সৈয়দপুরে ভুয়া কেসস্লিপসহ মাইক্রোবাস আটক করোনা: ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু আরও ২২৮, শনাক্ত ১১২৯১

নীলফামারীতে সুখের ঠিকানা খুঁজে পেলো ১০১০ ভুমিহীন পরিবার

জয়নাল আবেদীন হিরো,স্টাফ রিপোর্টার :
  • প্রকাশকাল | সোমবার, ২১ জুন, ২০২১
  • ৪৮ বার পঠিত

নীলফামারীতে আনুষ্ঠানিক ভাবে ১০১০টি পরিবারের কাছে ঘরের চাবি ও সনদপত্র হস্তান্তর করা হয়েছে রবিবার দুপুরে।
এরআগে সকালে সারাদেশে একযোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর উপজেলা পর্যায়ে মুজিববর্ষের উপহার হিসেবে ঘর ও জমি হস্তান্তর শুরু হয় নীলফামারীতেও।
সদর উপজেলার খোকশাবাড়ি ইউনিয়নের রামকলা গ্রামে জেলা পর্যায়ে আনুষ্ঠানিকতার আয়োজন করে নীলফামারী সদর উপজেলা প্রশাসন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন) লিজা বেগম, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাহিদ মাহমুদ, নারী ভাইস চেয়ারম্যান সান্তনা চক্রবর্তি বক্তব্য দেন অতিথি থেকে।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতারের সভাপতিত্বে এতে স্বাগত বক্তব্য দেন খোকশাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বদিউজ্জামান প্রধান।
উদ্বোধনী প্রাঙ্গণে ৩৭টি পরিবারের ঠাঁই হলেও ২০জনের কাছে ঘরের চাবি ও প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র হস্তান্তর করা হয়। বাকিদের ঘর নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে।
এই ইউনিয়নে ঘর ও জমি পাচ্ছেন গৃহহীণ ও ভুমিহীন ৭৯পরিবার। অনুষ্ঠানে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উদ্যোগে বিদ্যুৎ সংযোগ উদ্বোধন করা হয়।
প্রকল্পে ঠাঁই পাওয়া দুকুরী এলাকার যোগেন্দ্র নাথ রায়ের স্ত্রী চম্পা রানী বর্মণী জানান, দুই মেয়ে এক ছেলে আমার। মেয়ে দুটির বিয়ে হয়েছে। ছেলে রাজমিস্ত্রি কাজ করে।
অন্যের জায়গাত থাকি মেয়ের বিয়া দিয়েছি। ছেলে ঢাকাত কাজ করে, টাকা পাঠায়।
এই টাকা দিয়া সংসার চলে।
বাড়ি ভিটা কিছুই নাই। শেখ হাসিনা হামাক থাকির জায়গা করি দেইল, এ্যালা একটা ব্যবস্থা হইল হামার।
একই ইউনিয়নের মুশরত গোড়গ্রাম এলাকার প্রয়াত সুধির রায়ের স্ত্রী শুকবালা জানান, দশ বছর আগোত স্বামী মারা গেইছে। জমি জমা কিছুই নাই। দুই ছেলে মেয়ে নিয়ে অন্যের জাগাত আছো।
কাম করি সংসার চালেবার নাগে। জমি ঘর পায়া মোর খিব উপকার হইল।
জেলা প্রশাসন সুত্র জানায়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী(মুজিববর্ষ) উপলক্ষে দ্বিতীয় পর্যায়ে ১২৫০টি গৃহহীন ও ভুমিহীন পরিবারকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপহার হিসেবে ১লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে খাস জমিতে ঘর করে দিচ্ছেন দুই শতাংশ জমির উপর।
জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, ১২৫০টি পরিবারের মধ্যে ১০১০টি পরিবারের কাছে ঘরের চাবি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হস্তান্তর করা হয়েছে।
বাকি ২৪০টি ঘর নির্মাণ কাজ চলছে। শেষ হলে সেগুলো তালিকাভুক্তদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে কাজ করছেন তার কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
ভুমিহীন ও গৃহহীন মানুষরা কোথায় থাকতো, কিভাবে দিন কাটাতো তাদের কষ্টের কথা চিন্তা করে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী যে উদ্যোগ নিয়েছেন সেটির আজ সুফল ভোগ করছেন এসব মানুষরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!