1. admin@theinventbd.com : admin :
বুধবার, ২৮ জুলাই ২০২১, ১০:১১ অপরাহ্ন
সর্বশেষ

কঠোর লকডাউন: চতুর্থ দিনে নীলফামারীতে বিধিনিষেধ অমান্য করায় ৫৪ মামলা

জয়নাল আবেদীন হিরো,স্টাফ রিপোর্টার :
  • প্রকাশকাল | সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১
  • ৫১ বার পঠিত
সারাদেশের মতো কঠোর লকডাউনের চতুর্থ দিনে নীলফামারীতে বিধিনিষেধ অমান্য করায় ৫৪টি মামলায় ৮৮ হাজার ১৫০ টাকার জরিমানা আদায় করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। রবিবার(৪ জুলাই) সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেল সেন্টারের দেয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।
জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ জায়িদ ইমরুল মোজাক্কিন জানান, কঠোর বিধিনিষেধে আইন অমান্য করে অযথা ঘুরে বেরানো, মাস্ক ব্যবহার না করা এবং স্বাস্থ্য বিধি না মানায় জেলার জুড়ে রবিবার সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ৯টি ভ্রাম্যমাণ আদালতের টিম অভিযান পরিচালনা করেন। এতে ৫৪টি মামলায় ৮৮ হাজার ১৫০ টাকার জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে জেলা সদর উপজেলায় ২০ মামলায় ৯ হাজার ৪৫০, ডোমার উপজেলায় ১১ মামলা ১৬হাজার ৮০০, ডিমলায় ৭ মামলায় ৭ হাজার ২০০, জলঢাকায় ৫ মামলায় ৫ হাজার ৮০০, কিশোরীগঞ্জ উপজেলায় ৫ মামলায় ৩৯ হাজার টাকা এবং সৈয়দপুর উপজেলায় ৬ মামলায় ৯ হাজার ৯০০ টাকার জরিমানা আদায় করা হয়।
এদিকে কঠোর লকডাউনে জেলার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মাঠ পর্যায়ে পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান (বিপিএম,পিপিএম) ও রংপুর খোলাহাটি সেনানিবাসের ১৯ মিডিয়াম রেজিমেন্টের লেফটেন্যান্ট কর্ণেল মোঃ আরিফ হোসেন (পিএসসি.জি)।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন) লিজা বেগম, সিভিল সার্জন ডা. জাহাঙ্গীর কবির সহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা।
জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, কঠোর লকডাউনে চতুর্থ দিনে সকাল থেকে জেলা জুড়ে গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পয়েন্টে সেনাবাহিনী,বিজিবি,পুলিশ,র‌্যাব টহল অব্যাহত রেখেছে। উপজেলা প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে কাজ করছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। তিনি আরো জানান, জেলার সবখানে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সচেতনতা সৃষ্টি এবং মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। জনপ্রতিনিধিদের নিজ নিজ এলাকায় মাইকিং করে সকলকে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থানের জন্য জানানো হচ্ছে।
পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান (বিপিএম,পিপিএম) জানান, আইন বাস্তবায়নে মাঠে কাজ করছে পুলিশের প্রতিটি সদস্য। এছাড়ার জেলায় পুলিশের ১১টি চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। রাতের আধারে কেউ যেনো জেলায় প্রবেশ না করতে পারে সেজন্য রাতে বিশেষ টহল জোরদার রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!