1. admin@theinventbd.com : admin :
  2. worksofine@rambler.ru : JefferyDof :
  3. kevin-caraballo@mainello5.tastyarabicacoffee.com : kevincaraballo :
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত জলঢাকায় ইএসডিও- ডাভ সেলফ এস্টিম প্রকল্পের অবহিতকরন সভা অনুষ্ঠিত তিস্তায় পানি বৃদ্ধি ২২ গ্রাম প্লাবিত হুমকির মুখে তিস্তার তীরবর্তী মানুষ জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালন জলঢাকায় শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালন করেছে যুবলীগ জলঢাকায় ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নারী উদ্দোক্তা প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত আনন্দের ভাগিদার হতে ছুটে এসেছি জলঢাকায় পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে ড. তুরিন আফরোজ জলঢাকায় মঙ্গলদ্বীপের উদ্যোগে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত জলঢাকায় প্রতিমাকে দৃষ্টিনন্দন করতে রং তুলির কাজে ব্যস্ত এখন কারিগররা জলঢাকায় অনির্বাণ স্কুলে একাডেমিক ভুবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

সৈয়দপুরে ব্যবসায়ীকে মার ডাং করে চেক ও ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেওয়ার ঘটনায় মামলা

জয়নাল আবেদীন হিরো,স্টাফ রিপোর্টার সৈয়দপুর
  • প্রকাশকাল | বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১
  • ২৭০ বার পঠিত

নীলফামারীর সৈয়দপুরে ব্যবসায়ীকে আটকিয়ে মার ডাং করে জোর পূর্বক তিনটি চেকের পাতায় ও ৩০০ টাকার নন জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেওয়ার ঘটনায় নীলফামারী আদালতে মামলা দায়ের করেছেন ভূক্তভোগী ওই ব্যবসায়ী । গত ১৮ জুলাই নীলফামারী আমলী আদালত- ২ এ মামলাটি দায়ের করা হয় । আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে সৈয়দপুর থানাকে তদন্ত প্রতিবেদন প্রদানের নির্দেশ দেন। সেই সাথে চেক ও ষ্ট্যাম্প উদ্ধারের ও আদেশ দেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়,কামারপুকুর সরকার পাড়ার মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে আফজাল হোসেন (মনু) দীর্ঘদিন ধরে থাই মিস্ত্রী হিসাবে সুনামেরযসহিত ব্যবসা করে আসছেন। তাঁর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পাশে নিজ মালিকাধীন ৫.৬৬ শতক জমি বিক্রয় করিতে চাইলে একই ইউনিয়নের উত্তর অসুরখাই গ্রামের মৃত মহির উদ্দীনের ছেলে শাহজাহান আলী ক্রয় করতে ইচ্ছুক হনএবংবিভিন্ন মেয়াদে মনুকে ৪ লাখ ৫ হাজার টাকা প্রদান করেন।পরে শাহজাহান আলী ওই জমি ক্রয় করতে অনিহা প্রকাশ করেন এবং জমির টাকা তার ছেলে লিটনের চাকুরীর তদদীরকারক বিপুলকে দিতে বলেন। সে অনুযায়ী মনু বিপুলকে ৩ লাখ ৫ হাজার টাকা দেন। বাকী ১ লাখ টাকা শাহজাহান আলীকে বুঝিয়ে দেন। পরে লিটনের চাকুরী না হলে বিপুলকে টাকা ফেরতের চাপ দিতে থাকেন শাহজাহান ও তার লোকজন। পরবর্তীতে বিপুল সবার কাছে মনুর কাছ থেকে টাকা গ্রহণের কথা স্বীকার করেন। গত ২৬ জুন রাত ১০ টায় মনু তাঁর ব্যক্তিগত কাজ সেরে তোফায়েলের মোড়ে আসলে ওই ঘটনার জের ধরে কৌশলে মনুকে ডেকে শাহজাহান আলী তাঁর বাড়িতে নিয়ে যায় । সেখানে আগে থেকেই উপস্থিত ছিলেন লিটন,মোকতাজুল ইসলাম টিপু,আজিজুল ইসলামসহ অজ্ঞাত কয়েকজন । এ সময় তারা মনুকে মার ডাং শুরু করেন। মার ডাংয়ের এক পর্যায়ে উল্লেখিত ব্যক্তিরা মনুর কাছ থেকে রুপালী ব্যাংক সৈয়দপুর শাখা যার হিসাব নং-২৬২৯,তিনটি ফাঁকাচেকের পাতায় ও ১০০ টাকার ফাঁকা তিনটি নন জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তারিয়ে দেন।  ঘটনাটি পরে মিডিয়ায় প্রকাশ হয় । ঘটনার পরের দিন শাহজাহান আলী ফাঁকা ষ্ট্যাম্পে ৮ লাখ টাকা বসিয়ে নীলফামারী আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। মনু ১৯ জুলাই আদালত থেকে জামিন নেন। মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।
ওই মামলায় না পেরে আবার নতুন কৌশল করেন। ছিনিয়ে নেওয়া চেক দিয়ে মামলার কৌশল করেন। সে অনুযায়ী ২৬ জুলাই রুপালী ব্যাংকে যান শাহজাহানসহ তাঁর লোকজন। তারা ৩৭৩৬৭৮৮ নং চেকের একটি পাতায় ১০ লাখ টাকার অংক বসিয়ে চেকটি ডিজঅনার করার জন্য। কিন্তু চেকে তারিখ লেখা ছিল ০১/০১/২০২১ইং। যেহেতু চেকের মেয়াদ ৬ মাস পার হয়েছে তাই চেকটি ফেরত দেন ব্যাংক কতৃপক্ষ । অপরদিকে ছিনিয়ে চেকের বিষয়টি ব্যাংক ম্যানেজারকে জানাতে গিয়ে ডিজঅনারের বিষয়টি জানতে পারেন আফজাল হোসেন মনু,এসময় তিনি আদাতের আদেশ ও মামলার কাগজ পত্র দেখান ম্যানেজারকে। এব্যাপারে আজ বৃহস্পতিবার সৈয়দপুর রুপালী ব্যাংকের ম্যানেজার মাসুদ রানা জানান,এক ব্যক্তি ১০ লাখ টাকার ৩৭৩৬৭৮৮ নং একটি চেক ডিজঅনার করার জন্য ব্যাংকে এসেছিল। চেকটির মেয়াদ ৬ মাস পার হওয়ায় চেকসহ ওই ব্যক্তিকে ফেরত

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!