1. admin@theinventbd.com : admin :
  2. worksofine@rambler.ru : JefferyDof :
  3. kevin-caraballo@mainello5.tastyarabicacoffee.com : kevincaraballo :
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:২১ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
জলঢাকায় ফেন্সিডিল সহ গ্রেফতার- ২ পলাতক-১’জন মোটরসাইকেল জব্দ সৈয়দপুরে জীবিত স্বামীকে মৃত দেখিয়ে ১৭ বছর থেকে বিধবা ভাতা উত্তোলন, সমাজসেবা কর্তৃপক্ষ নির্বিকার ঝিকরগাছায় আর্সেনিক ঝুঁকি নিরসন প্রকল্পের অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত জলঢাকায় ১১ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশের মাঝে ১০৯টি বাইসাইকেল বিতরণ জলঢাকায় যানজটে জনদুর্ভোগ বেড়েই চলছে : নিরসনের দাবি পৌরবাসির বেনাপোলে গৃহহীনদের ঘর নিয়ে ভুমি অফিসের সহকারীর বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ। ঝিকরগাছায় সাপের কামড়ে ১ গৃহবধূর মৃত্যু বেনাপোলে র‍্যাবের অভিযানে গাজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক সৈয়দপুরে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বাইসাইকেল বিতরণ সৈয়দপুরে সাহিত্য আসরের ৪থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন

‘লকডাউনে’ও চট্টগ্রাম বন্দর স্বাভাবিক

অনলাইন ডেস্ক |
  • প্রকাশকাল | শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩১ বার পঠিত

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে চট্টগ্রামেও লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ। সরকার সংক্রমণ ঠেকাতে সারা দেশে ‘কঠোর বিধিনিষেধ’ দিয়েছে। এর মধ্যেও পুরোপুরি সচল চট্টগ্রাম বন্দর। প্রত্যেক দিন জাহাজ থেকে আমদানি পণ্যের কন্টেইনার নামানো, রপ্তানি পণ্যভর্তি কন্টেইনার জাহাজে তোলা, ট্রেইলর, বন্দর থেকে পণ্যবাহী কন্টেইনার ডেলিভারিসহ সবকিছু স্বাভাবিক সময়ের মতো চলছে। বন্দরের ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধের প্রথম ১০ দিনে প্রায় ৪০ হাজার টিইইউস (টুয়েন্টি ফিট ইক্যুইভ্যালেন্ট ইউনিটস) কন্টেইনার ডেলিভারি হয়েছে। সার্বিক কন্টেইনার হ্যান্ডলিংও স্বাভাবিক গতিতে হচ্ছে। তবে গত বছর একই সময়ে করোনার কারণে বন্দরের সার্বিক কার্যক্রমে ভয়াবহ বিপর্যয় দেখা দিয়েছিল। ধারণক্ষমতার অনেক বেশি কন্টেইনারে ব্যাহত হয়েছিল আমদানি-রপ্তানি। তবে এবার এখন পর্যন্ত কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে সক্ষম হয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। সার্বক্ষণিক বন্দর চালু রাখার বিষয়ে বিশেষ পরিকল্পনা করে বন্দর কর্র্তৃপক্ষ। পরে সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়। বন্দরে আগত জাহাজগুলোর নাবিকদের বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ও ইন্টারন্যাশনাল মেরিটাইম অরগানাইজেশনের (আইএমও) ঘোষণা অনুযায়ী কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে। চালু রয়েছে বন্দর হাসপাতালের চিকিৎসা। নমুনা পরীক্ষা, জরুরি ওষুধ, অক্সিজেন সিলিন্ডার মজুদ, অ্যাম্বুলেন্সসহ যাবতীয় সরঞ্জাম প্রস্তুত রাখা হয়েছে। কারও শরীরে উপসর্গ দেখা দিলে পরীক্ষার রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত তাকে বাসাবাড়িতে আইসোলেশনে রাখা হচ্ছে। বন্দরের ভেতরে মাস্কসহ স্বাস্থ্যবিধি মানাতে নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছেন বন্দরের ম্যাজিস্ট্রেট। বন্দরের ট্রাফিক বিভাগের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ৫ এপ্রিল সরকারি বিধিনিষেধ শুরুর দিন থেকে প্রতিদিন গড়ে ৪ হাজার টিইইউস কন্টেইনার ডেলিভারি হয়েছে। এর মধ্যে ৫ এপ্রিল ৪ হাজার ১৮৪, ৬ এপ্রিল ৩ হাজার ৮৭৯, ৭ এপ্রিল ৪ হাজার ১৮৯, ৮ এপ্রিল ৪ হাজার ৪৩৫, ৯ এপ্রিল ৩ হাজার ৪৪২, ১০ এপ্রিল ২ হাজার ২৯০, ১১ এপ্রিল ৩ হাজার ৫৩৬, ১২ এপ্রিল ৫ হাজার ২৬৯, ১৩ এপ্রিল ৫ হাজার ১৫১ ও ১৪ এপ্রিল ৩ হজার ১২২ টিইইউস কন্টেইনার ডেলিভারি হয়। একই সময়ে প্রতিদিন গড়ে ৮ হাজার টিইইউস কন্টেইনার হ্যান্ডলিং হয়। এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বন্দর কর্র্তৃপক্ষের সচিব মো. ওমর ফারুক দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেও বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম ও ডেলিভারি স্বাভাবিক রয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেটিতে জাহাজ বার্থিং নেওয়া, পণ্য ওঠা-নামা, ডেলিভারি সবই করা হচ্ছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘বন্দর স্বাভাবিক রাখতে আগেই স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে বৈঠক করা হয়। সবার সহযোগিতা ও গতবারের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এখন পর্যন্ত আমরা সফল হয়েছি। আশা করছি, বাকি সময়েও বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন :

এই বিভাগের আরও খবর
Copyright © The Invent
error: Content is protected !!